Home / হাতে কলমে / কিভাবে করবেন / আকর্ষণীয় সিভি তৈরি করার পদ্ধতি
আকর্ষণীয় সিভি তৈরি করার পদ্ধতি

আকর্ষণীয় সিভি তৈরি করার পদ্ধতি

একটি সিভি বা জীবনবৃত্তান্ত হল চাকুরিদাতার কাছে আপনাকে সঠিক ভাবে উপস্থাপন করার একটি মাধ্যম। একটা সম্মানিত চাকরি পাওয়ার জন্য একটা ভালো মানের সিভির প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। আবার এমন অনেক লোক আছেন যারা বারবার সিভি জমা দেয়ার পরও সাক্ষাৎকারের  ডাক পাননি। একটি সিভির পিছনে গড়ে ৩০ থেকে ৫০ সেকেন্ড ব্যায় করেন একজন চাকুরিদাতা ।

এমনভেবে আপনার সিভি উপস্থাপন করুন যেন তা চাকরিদাতাকে আকৃষ্ট করে। তাই অবাঞ্ছিত বা অপ্রাসঙ্গিক তথ্য সিভিতে দেয়া থেকে বিরত থাকুন। সিভি তৈরির আগে যেসব বিষয়ের দিকে নজর রাখবেন—

আকর্ষণীয় সিভিতে যা যা থাকবেঃ

সিভির প্রথমে থাকবে হেডিং। এ অংশে থাকবে আপনার নাম, ঠিকানা, কন্টাক্ট নম্বর ইত্যাদি। এরপর আপনি কোন পদের জন্য আবেদন করবেন, কেন আপনি নিজেকে সে পদের উপযুক্ত বলে মনে করেন সে বিষয়ে সংক্ষিপ্ত বিবরন দিবেন। এরপর আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, দক্ষতা, পার্সোনাল মূল্যবোধ ইত্যাদি সম্পর্কে লেখা থাকবে।

সিভি লম্বা বা বড় না করাঃ

অপ্রয়োজনীয় জিনিস লিখে সিভি লম্বা করবেন না। কারণ আপনারটি ছাড়াও আর অনেক সিভিই জমা পড়বে। তাই আপনার সিভিটি যেন নিয়োগকারীর বিরক্তির কারন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। নতুনদের ক্ষেত্রে ১ পৃষ্ঠার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা উত্তম।

পুনরাবৃত্তি না করাঃ

কোন তথ্য দুবার উল্লেখ করা যাবে না। একই ধরনের সকল তথ্য একই অনুচ্ছেদে রাখার চেষ্টা করুন। নিজের ব্যাপারে কোন মিথ্যা তথ্য দেয়া যাবে না। আপনার যোগ্যতা যা সেটাই সিভিতে উল্লেখ করুন। তাহলে অনেক আত্মবিশ্বাসী হয়ে ইন্টারভিউ দিতে পারবেন।

ভাষাগত ভুল না করাঃ

আপনার সিভিতে যেন কোনো প্রকার বানান বা ব্যাকরণগত ভুল না থাকে। যদি থাকে, তাহলে শুরুতেই আপনার সিভিটি বাতিল বলে গণ্য হতে পারে। মনে রাখবেন, সিভিতে সঠিক ব্যাকরণ ও বানানগত উপস্থাপন আপনার ভাষাগত দক্ষতা ও সচেতনতা প্রকাশ করবে। তাই এ ব্যপারে অবশ্যই সচেতন থাকবেন।

হার্ডকপি পাঠালেঃ

যদি হার্ডকপি পাঠান, তাহলে খেয়াল রাখুন যে কাগজে সিভি প্রিন্ট করে পাঠাচ্ছেন, সেটি একটু ভালো মানের হয়। স্ট্যান্ডার্ড এ-ফোর অথবা লেটার সাইজের অফসেট কাগজ ব্যাবহার করতে পারেন। টাইপিং এ ফন্ট সাধারণত ১২ সাইজের টাইমস নিউ রোমান ফন্ট ব্যবহার করা ভালো। শিরোনামের ক্ষেত্রে ১৪ থেকে ১৬ সাইজের ফন্ট ব্যবহার করা উত্তম। কোনো তথ্যকে হাইলাইট বা বিশেষগুরুত্ব দেবার জন্য বোল্ড বা ইটালিক ফন্ট ব্যবহার করুন।

আপনার শখ বা পছন্দ:

আপনি যে পেশার জন্য আবেদন করছেন তার সাথে সামঞ্জস্য রেখে নিজের শখ বা পছন্দের কথা সিভিতে উল্লেখ করতে পারেন।এক্ষেত্রে পেশার সাথে শখের মিল না থাকলেও কোন সমস্যা নেই। একটি পরিপূর্ণ ও ভালোমানের সিভি আপনাকে চাকরি পেতে অনেকটাই সাহায্য করবে। তাই এমন ভাবে সেটি তৈরি করুন যেন আপনি নিজেকে সম্পূর্ণ ও পরিপূর্ণভাবে প্রকাশ করতে সক্ষম হন।

 

About Parves Ahmed

Parves Ahmed
অনুকরণ নয়, অনুসরণ নয়, নিজেকে খুঁজে চলেছি, নিজেকে জানার চেষ্টা করছি, নিজের পথে হেটে চলছি॥

Check Also

হাতের লেখা দ্রুত ও সুন্দর করার পদ্ধতি

হাতের লেখা দ্রুত ও সুন্দর করার পদ্ধতি

​কলম ,কালি,মন লিখে কিন্ত ৩টা কলম,কালি ও গভীর মনোযোগ এক সাথে হলেই কিন্ত হাতের লেখা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *