Home / ফিচার / দেহতত্ব / স্বাস্থ্যকর থাকার কিছু টিপস
স্বাস্থ্যকর থাকার কিছু টিপস্
স্বাস্থ্যকর থাকার কিছু টিপস্

স্বাস্থ্যকর থাকার কিছু টিপস

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যাঁরা ওজন কমানোর জন্য অনেক বেশি কষ্ট করেছেন। এটার পেছনে শুধু টাকা খরচ হয় ত নয়, অনেক বেশি পরিশ্রমও করতে হয়। সবার পক্ষে এত বেশি দামী থেরাপি নিয়ে ওজন কমানো সম্ভব নয়। আপনি যদি শক্ত মনোবলের অধিকারী হন তাহলে আপনি পরিমাণ মত খাবার খেয়ে কম খরচেই স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করতে পারেন। ফলে আপনাকে বেশি বেশি ডাক্তার দেখাতে হবে না আর আপনি আপনার বাচ্চাদের সাথে অনেক বেশি সময় কাটাতে পারবেন। আসুন দেখা যাক তা কি ভাবে সম্ভম।

 

১. শরীর চর্চা।

আপনি জিমেই জান আর বাড়িতেই শরীর চর্চা করেন, এটা আপনাকে শারীরিক ও মনসিক ভাবে সুস্থ রাখার জন্য অত্যন্ত জরুরী। খরচ যদি আপনার কাছে একটি বড় ব্যাপার হয়ে থাকে তাহলে আপনি ৩০ মিনিট দ্রæত গতিতে হাঁটতে পারেন। এরপর উঠ-বস আর বুক-ডন। আর যদি আপনার কাছে খরচ কোন ব্যাপার না হয়ে থাকে তাহলে দেরি না করে আজই একটি জিমের সদস্যপদ কিনে নিতে পারেন।

২. আপনার খাবারে রাখুন ফল ও শাকসবজি।

আপনার জন্য খুব বেশি ভাল হয় যদি আপনি কৃষকের কাছ থেকে একদম সতেজ ফলমূল ও শাকসবজি কিনতে পারেন। এমন জিনিসের দামও কম আর মানও ভাল। আর যদি সে সুযোগ না থাকে তাহলে আপনাকে শপিং মলের উপরই নির্ভর করতে হবে। চেষ্টা করবেন যেন আপনার খাবারে ফলমূল এবং শাকসবজি বেশি থাকে।

৩. বদ-অভ্যাস ত্যাগ করুন।

ধূমপান ও মদ্যপান থেকে বিরত থাকুন এবং নিয়মানুবর্তী জীবন যাপন করুন। বদ-অভ্যাস পরিত্যাগ করার জন্য আপনাকে আতœবিশ্বাসী হতে হবে। আপনি যদি ধূমপায়ী হয়ে থাকেন তাহলে রাতারাতি তা ছাড়তে পারবেন না। একটু একটু করে তা ছাড়তে হবে। আপনি যদি মদ্যপায়ী হয়ে থাকেন তাহলে একটু একটু করে তা পান করা কমাতে হবে। বদ-অভ্যাস আছে এমন বন্ধুদের থেকে দূরে থাকুন।

৪. আপনার লক্ষ্য ঠিক করুন।

সুস্বাস্থ্যের জন্য লক্ষ্য থাকাটা জরুরী। যদি আপনি ১০ কেজি ওজন কমাতে চান তাহলে প্রতি মাসে কমপক্ষে ২ কেজি ওজন কমানোর লক্ষ্য ঠিক করুন। পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ না হলে আপনি আপনার কৌশল পরিবর্তন করতে পারেন। আপনি যদি ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার কথা ভেবে থাকেন তাহলে এখন যা খাচ্ছেন এক সপ্তাহের মধ্যে তার পরিমাণ অর্ধেকে নামিয়ে আনার লক্ষ্য ঠিক করুন। ধৈর্য ধরুন ভাল কিছুর জন্য।

৫. উদ্বিগ্নতা এড়িয়ে চলুন।

অফিসের ঝামেলা নিয়ে বেশি চিন্তা করলে আপনার স্বাস্থ্য খারাপ হবে। এগুলো থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। সবকিছু আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন না আর এটি আপনাকে মেনে নিতে হবে। এমন অনেকেই আছে যাঁরা আপনার মতই সমস্যা মোকাবেলা করছেন। যতদূর সম্ভব সমস্যা মোকাবেল করুন, শান্ত থাকুন।

যত বেশি সুস্থ থাকবেন আপনার স্বাস্থ্য বীমার খরচ তত কম হবে। ধূমপান ছেড়ে দিলেও আপনার অনেক টাকা বেঁচে যাবে। অর্থাৎ সুস্থ থাকার ফলে আপনার কছে যত সুযোগ আসবে আপনি সবই কজে লাগাতে পারবেন।

About Parves Ahmed

Parves Ahmed
অনুকরণ নয়, অনুসরণ নয়, নিজেকে খুঁজে চলেছি, নিজেকে জানার চেষ্টা করছি, নিজের পথে হেটে চলছি॥

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *